By: Daily Janakantha

স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে বদলে যাবে বাগেরহাট

দেশের খবর

17 Jun 2022
17 Jun 2022

Daily Janakantha

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ উপকূলীয় গাঢ় সবুজে ঘেরা জনপদ বাগেরহাট। আক্ষরিক অর্থে অনুন্নত এ জেলার চিত্র পদ্মা সেতু চালু হতে না হতেই পাল্টে যেতে শুরু করেছে। পিছিয়ে পড়া এ জেলার অর্থনৈতিক ও অবকাঠামোগত অভতূপূর্ব উন্নয়ন শুরু হচ্ছে। কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অবকাঠামো, কর্মসংস্থান সব ক্ষেত্রেই পড়ছে অগ্রগতির অভূতপূর্ব ছাপ।
পদ্মা সেতুর কারণে যে জেলাগুলো সরাসরি লাভবান হবে তার মধ্যে অন্যতম বাগেরহাট। ইতিমধ্যেই এ জেলার মোংলা বন্দর ও নির্মাণাধীন খানজাহান আলী (র:) বিমান বন্দর এলাকায় জমির মূল্য অনেক গুণ বেড়ে গেছে। বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্টান জমি কিনছে। বাগেরহাট জেলা চেম্বার অফ কমার্স সভাপতি লিয়াকত হোসেন লিটন বলেন, পদ্মা সেতু চালু হলে দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে সরাসরি রাজধানী ঢাকাসহ দেশের উত্তরাঞ্চলের যোগাযোগ স্থাপিত হবে। সেই সঙ্গে পিছিয়ে পড়া এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন হবে। যুগ যুগ ধরে চলে আসা এসব সমস্যার সমাধান তো হবেই, এই অঞ্চলে এখন নতুন নতুন শিল্প কারখানা গড়ে উঠবে, বেকারত্ব দূরীকরণে তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। বাগেরহাটের পাশাপাশি গোটা দক্ষিণাঞ্চলের চেহারা বদলে যাবে।’
মোংলা বন্দর ব্যবহারকারী সমন্বয় কমিটির মহাসচিব অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম বলেন, বন্দর ব্যবহারকারীদের জন্য চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরের চেয়ে মোংলা বন্দরের সুবিধা বেশি। বিশেষ করে গাড়ি আমদানিতে চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ে মংলা বন্দরের সুবিধা অনেক বেশি। তুলনামূলক খরচ কম, নিরাপদে গাড়ি রাখার সুবিধার কারণেই চট্টগ্রামের চেয়ে মোংলা বন্দর দিয়ে গাড়ি আনতে ব্যবসায়ীরা আগ্রহী। তাঁর ভাষায়, ’মোংলা বন্দরে অনেক বেশী কর্মচাঞ্চল্য সৃষ্টি হবে।’
বাগেরহাটের মাছ, সবজি ধান ও পান পুরো দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের কৃষি অর্থনীতিতে বিশেষ ভুমকিা রাখে। যদিও দক্ষিন পশ্চিমাঞ্চলের প্রতিটি জেলাতেই ধান ও মাছ চাষ করা হয। সুন্দবন সংলগ্ন বলে প্রাকৃতিক উৎস থেকে বিপুল পরিমাণ মাছ আহরিত হয়। তাছাড়া এ জেলার ৫টি উপজেলায় প্রতি বছর ৫০ হাজার মেট্রিকটন সবজি উৎপাদন হয়। যার সিংহ ভাগই ঢাকার বাজারে যায়।
বাগেরহাটের তরুণ উদ্যোক্তা চিংড়ি ঘের ব্যবসায়ী তরিকুল ইসলাম বলেন, যে এসব মাছ,সবজি ঢাকার বাজারে পৌছানো ছিলো খুবই কষ্টসাধ্য এবং ব্যয় বহুল। এখন তা সহজ হবে। এ অঞ্চলের মাছ ও সবজি চাষিরা হবেন লাভবান। যানজট ও ফেরী জটিলতার কারনে মাছ ও সবজি নিয়ে যানবাহনকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে থাকতে হত পদ্মা পাড়ে। এখন একটানে এসব মালামাল পৌছে যাবে ঢাকাসহ দেশের উত্তরাঞ্চলের জেলা গুলোতে। ফলে ওই অঞ্চলের কৃষকদের উৎপাদিত ফসল সহজেই দেশের বিভিন্ন স্থানে পৌছে যাবে। এতে কৃষক ফসলের ন্যায্য মূল্য পাবে। এছাড়া কৃষিক্ষেত্রে নতুন নতুন প্রযুক্তির ব্যবহার সহজ হবে। ফলে উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে। তবে তিনি “পদ্মা সেতু পার হবার পরে যেন যানজট না হয়, সে ব্যাপারে শুরু থেকেই পরিকল্পনা করার মত দেন।
বাগেরহাট ষাটগম্বুজ যাদু ঘরের কাষ্টডিয়ান মোঃ যায়েদ বলেন, প্রতœ সম্পদ আর পুরাকির্ত্তির শহর বাগেরহাট। এখানে রয়েছে বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবন, ষাটগম্বুজ মসজিদসহ খানজাহান আলী ( রঃ) মাজার ও দিঘি, অযোধ্যা মঠ, মোড়েল স্মৃতির মত মধ্যযুগীয়অপূর্ব স্থাপত্যকলা। প্রত্নতত্ম ও পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের তথ্য অনুযায়ী এখানে বছরে প্রায় আড়াই লাখ দেশি বিদেশি পর্যটকের আগমন ঘটে। পদ্মা সেতু চালু হলে যা দ্বিগুন হবে বলে আশা করেন তিনি।তিনি আরো বলেন পদ্মা সেতু চালু হলে উন্মোচিত হবে পর্যটনের স্বর্ন দুয়ার। ফলে রাজস্ব আয় কয়েকগুণ বাড়বে।’
বিএমএর সভাপতি ডা: অরুণ চন্দ্র মন্ডল বলেন, স্বাস্থ্য খাতে নানাভাবে বঞ্চিত এ জেলার স্বাস্থ্য সেবার মান আরও উন্নত হবে। খ্যাতিমান চিকিৎসক এখানে আসবেন। আবার সংকটাপন্ন রোগীরা দ্রুত সময়ে ঢাকায় গিয়ে উন্নত চিকিৎসা নিতে পারবেন। আসলে বাগেরহাটের স্বাস্থ্য খাতের অভুতপূর্ব পরিবর্তন হবে।’
বাস মালিক সমিতির সভাপতি শেখ নজরুল ইসলাম মন্টু জানান,পদ্মা সেতু চালু হলে প্রথম বারের মত ঢাকার সাথে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ হবে বাগেরহাটের। ইতিমধ্যে খ্যাতিসম্পন্ন পরিবহন গুলোর মালিকেরা নতুন ভাবে প্রস্তুতি শুরু করছেন। তারা এখন ঢাকা-বাগেরহাটসহ এ অঞ্চলে তাদের পরিবহন চালু করতে আগ্রহী হচ্ছেন। পদ্মা সেতু চালুর পর ঢাকা থেকে এ জেলার দূরত্ব হবে ১৭২ কিলোমিটার। এখন মাত্র সাড়ে তিন ঘন্টায় ঢাকায় যেতে পারবেন বাগেরহাটবাসী।
বাগেরহাটের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ সরকারী পিসি কলেজের অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক অশীতিপর অধ্যাপক মোজাফ্ফর হোসেন মনে করেন, পদ্মা সেতু চালু হলে ঢাকা আসা-যাওার কষ্ট আর থাকবে না-এটিই স্বস্তির। মাওয়া ঘাটেই ফেরী পার হতে অপেক্ষা করতে হতো সর্বনিন্ম ২ থেকে ৪ ঘণ্টা। ঢাকা যেতে সময় লাগত প্রায় ৭/৮ ঘন্টা। এ বিড়ম্বনার শেষ হবে। এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কি হতে পারে। আসলে এ সেতু চালু হলে বাগেরহাটসহ গোটা দক্ষিণাঞ্চলে সমৃদ্ধির ও প্রাণ চাঞ্চল্য ফিরে আসবে। জীবন-জীবীকা সহজ হবে। বেকারত্ব হ্রাস পাবে। শিক্ষা ক্ষেত্রে অগ্রগতি হবে অভাবনীয়। এখানে বেসরকারী উদ্যোগে কলেজ, মেডিকেল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়সহ নানা ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে। অপেক্ষাকৃত কম খরচে এবং ভোগান্তি বিহীনভাবে শিক্ষার্থীরা উচ্চ শিক্ষা গ্রহন করতে পারবেন।
বাগেরহাট ডিস্ট্রিক পলিসি ফোরামের এবং সংস্কৃতিক সংগঠন ‘গীতাঞ্জলী’ ও ‘মুর্চ্ছনা’র সভাপতি ও বাগেরহাট প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি বাবুল সরদার বলেন, পদ্মা সেতু আমাদের মর্যাদার প্রতীক। এ সেতু আমাদের অহংকার। উন্নয়নের গর্ব। পদ্মা সেতু চালু হলে কৃষি, শিক্ষা, বানিজ্য, অবকাঠামো, যোগাযোগ ব্যবস্থা, জীবন-জীবীকা-সহ সব ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন ঘটবে। একইসাথে আমাদের শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতিক অঙ্গনেও নতুন প্রাণের স্পন্দন সৃষ্টি হবে।

The Daily Janakantha website developed by BIKIRAN.COM

Source: জনকন্ঠ

সম্পর্কিত সংবাদ
পদ্মা সেতুর প্রথম লেডি বাইকার রুবায়াত রুবা

পদ্মা সেতুর প্রথম লেডি বাইকার রুবায়াত রুবা প্রথম পাতা 26 Jun 2022 26 Jun 2022 Daily Janakantha জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ Read more

আঁকাআঁকির আশ্রয়ে কর্মশালা, ছবির টাকায় বাঁচবে জীবন

আঁকাআঁকির আশ্রয়ে কর্মশালা, ছবির টাকায় বাঁচবে জীবন শেষের পাতা 26 Jun 2022 26 Jun 2022 Daily Janakantha মনোয়ার হোসেন ॥ Read more

বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাস ॥ স্বপ্নের পদ্মা সেতু পাড়ি দিতে ঢল

বাঁধভাঙ্গা উচ্ছ্বাস ॥ স্বপ্নের পদ্মা সেতু পাড়ি দিতে ঢল প্রথম পাতা 26 Jun 2022 26 Jun 2022 Daily Janakantha জনকণ্ঠ Read more

দেশে প্রথম ইটিএফ হচ্ছে ডন গ্লোবালের সহযোগিতায়

বাংলাদেশে প্রথম এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড (ইটিএফ) চালু করতে কারিগরি সহযোগিতা করবে যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ডন গ্লোবাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

ফিফা নারী আন্তর্জাতিক ফুটবল সিরিজ জিতল বাংলাদেশ

ফিফা নারী আন্তর্জাতিক ফুটবল সিরিজ জিতল বাংলাদেশ শেষের পাতা 26 Jun 2022 26 Jun 2022 Daily Janakantha রুমেল খান ॥ Read more

গুজরাট দাঙ্গায় মোদির ভূমিকা নিয়ে সরব মানাধিকার কর্মী গ্রেপ্তার

ভারতের গুজরাট দাঙ্গায় রাজ্যের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অব্যাহতিকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়া মানবাধিকার কর্মী তিস্তা সেতালভাদকে গ্রেপ্তার করেছে Read more

আমরা নিরপেক্ষ নই ,    জনতার পক্ষে - অন্যায়ের বিপক্ষে ।    গণমাধ্যমের এ সংগ্রামে -    প্রকাশ্যে বলি ও লিখি ।   

NewsClub.in আমাদের ভারতীয় সহযোগী মাধ্যমটি দেখুন