By: Daily Janakantha

নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার জাল ॥ স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

প্রথম পাতা

16 Jun 2022
16 Jun 2022

Daily Janakantha

শংকর কুমার দে ॥ স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের নিরাপত্তায় জলে, স্থলে ও আকাশ পথে কঠোর নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার জাল তৈরির পরিকল্পনা করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আকাশে মেশিনগানে সুসজ্জিত হয়ে টার্গেট ফিক্সিং করে হেলিকপ্টার চক্কর দেবে। জলে থাকবে কোস্টগার্ডসহ নৌপুলিশের চৌকস বাহিনীর প্রহরা। স্থলে পুলিশ, আনসার, র‌্যাব, এপিবিএন, বিজিবি ও সাদা পোশাকে মোতায়েন করা হবে। মূল সেতু ঘিরে নিরাপত্তা দেবে সেনাবাহিনী।
ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার চোখে পদ্মা সেতুর সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে ঢাকাসহ সারাদেশে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। বিশেষ করে পদ্মা সেতুর দুই পাড়ে নজিরবিহীন নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আর সেতুর দুই পাড়ের এলাকায় পুলিশ ও র‌্যাব গড়ে তুলেছে নিরাপত্তা বলয়। ডগস্কোয়াড, বোম ডিজপোজেল টিম, জলকামানসহ সব ধরনের অস্ত্রশস্ত্রের থাকবে রণক্ষেত্রের প্রস্তুতি। সন্ত্রাসী, জঙ্গী, দুর্বৃত্ত মোকাবেলায় জানমালের নিরাপত্তায় প্রয়োজনে গুলি করার হুকুম থাকবে। পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানকে সামনে রেখে নাশকতার আশঙ্কা আছে এমন প্রতিবেদন দিয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা। গোয়েন্দা সংস্থার এ ধরনের তথ্য পাওয়ার পর সরকারের নীতি নির্ধারক মহল থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নিরাপত্তায় নজিরবিহীন কঠোর নিñিদ্র নিরাপত্তার সবুজ সঙ্কেত দেয়া হয়েছে। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সামনে রেখে ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে তল্লাশি জোরদার, থানা এলাকার মেস ও আবাসিক হোটেলে অভিযান ও নজরদারি শুরু করা হয়েছে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কেউ যাতে গুজব ছড়াতে না পারে সেজন্য সার্বক্ষণিক সাইবার মনিটরিং করা হচ্ছে। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে স্মরণাতীতকালের জাঁকজমকপূর্ণ ও উৎসবমুখর। পদ্মা সেতুর উদ্বোধীন অনুষ্ঠানের দিন প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিসভার সদস্য, এমপি, বিশিষ্ট রাজনীতিক, ব্যবসায়ী, কূটনীতিক, দেশী-বিদেশী অতিথিসহ ভিআইপিদের থাকবে ব্যাপক উপস্থিতি। এ ধরনের ভিআইপিসহ পদ্মার দুই পাড়ের সকল শ্রেণীর মানুষজন যাতে নেচে গেয়ে আনন্দ উৎসবের আমেজে কাটাতে পারে সেজন্য নিরাপত্তার নজিরবিহীন কঠোর নিñিদ্র নিরাপত্তার প্রস্তুতি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পুলিশের উচ্চ পর্যায় সূত্রে এ খবর জানা গেছে।
গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদন পাওয়ার পর সারাদেশে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, বিজিবিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। উদ্বোধনের দিন পদ্মা নদীর দুই পাড়েই শুধু মোতায়েন করা হবে পাঁচ সহস্রাধিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য। সাদা পোশাকে তো থাকবেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। পদ্মা নদীতে নিরাপত্তা দেবে নৌপুলিশ। কোস্টগার্ডও থাকবে নিরাপত্তায়। ডগস্কোয়াড, বোম ডিসপোজেলসহ সর্বোচ্চ নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকবে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে। একটি অশুভ মহল পদ্মা সেতুর তৈরির শুরু থেকে যে ষড়যন্ত্র করে আসছে তা এতদিন বাস্তবায়নে ব্যর্থ হয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বন্ধের জন্য নাশকতার ষড়যন্ত্র করছে এমন তথ্য পেয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পুলিশ সদর দফতরসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে গোয়েন্দা সংস্থার এই প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পদ্মা সেতু তৈরিতে যারা এর বিরোধিতা করেছিল, তারা দেশ-বিদেশে ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচার করছে। সীতাকু-ের বিএম কন্টেনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকা-, পরাবত এক্সপ্রেস ট্রেন এবং পদ্মায় ফেরিতে অগ্নিকা-ের ঘটনাগুলো একটার সঙ্গে আরেকটার যোগসূত্র থাকতে পারে বলে গোয়েন্দা সংস্থার তদন্তে উঠে এসেছে। গোয়েন্দা সংস্থার সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আছে ১৩ বছরেরও বেশি সময়। এই সময়ে দেখা গিয়েছে যখনই কোন উন্নয়ন, অগ্রগতি ও ভাল কিছু করতে গেছে এই সরকার তখনই কোন না কোনভাবে সেটাকে ভেস্তে দেয়ার জন্য একটি মহল নানাভাবে ষড়যন্ত্র করেছে। যেমন পদ্মা সেতু তৈরির শুরু হওয়ার আগেই দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্রের ফলে পদ্মা সেতু তৈরিই হুমকির মুখে পড়ে যায়। এই কারণে প্রায় ২ বছর পদ্মা সেতুর কাজও বন্ধ রাখা হয়। বিশ্বব্যাংক দুর্নীতির অভিযোগে অর্থ দিতে অস্বীকৃতি জানায়। যদিও শেষ পর্যন্ত প্রমাণিত হয় যে, দুর্নীতির যে অভিযোগ উঠেছিল সেটি মিথ্যা। এরপর বাংলাদেশ নিজ অর্থেই পদ্মা সেতু নির্মাণ করছে। আগামী ২৫ জুন এই সেতুর উদ্বোধন হবে। ফলে এই সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে একটি নাশকতার ছক হচ্ছে এটি অনেক আগে থেকেই আঁচ করা যাচ্ছিল।
গোয়েন্দা সংস্থর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পদ্মার সেতু দেশের মানুষের একটি গৌরবের বিষয়। দেশের মানুষের স্বপ্ন। সেই স্বপ্নকে ভেঙ্গে দিতে বিভিন্ন সময় দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র হয়েছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই স্বপ্নকে পূরণ করে দেখিয়েছেন। যখন ষড়যন্ত্র করেও পদ্মা সেতু তৈরি আটকানো যায়নি, তখন সেটির উদ্বোধনকে কীভাবে ভেস্তে দেয়া যায় তার একটি পরিকল্পনা চালাচ্ছে সেই অশুভ মহল। সেই পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই সীতাকু-ের ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে। কারণ আগামী ২৫ জুন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন। এই উদ্বোধনকে ঘিরে পুরো জাতি একটি উৎসবের আমেজে সেজে অপেক্ষা করছে। এই অবস্থায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের আনন্দ খুশি কিভাবে বিষাদে পরিণত করা যায় সেই বিষয়ে অশুভ মহল ছক কষছে এমন তথ্য পেয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা।
পুলিশ সদর দফতরের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, পদ্মা সেতুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশের মানুষ। অপেক্ষার প্রহর প্রায় শেষ। আর মাত্র ৭ দিন পরই খুলছে স্বপ্নের দুয়ার। স্বপ্নের পদ্মা সেতু এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়। বহুরূপী পদ্মার ওপর দিয়ে সাঁই সাঁই করে ছুটবে গাড়ি। এমন স্বপ্নে বিভোর দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ। আগামী ২৫ জুন স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরদিন ভোর ৬টা থেকে যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হবে সেতুটি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে ঘিরে রাজধানীসহ সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। একটি মহল নাশকতা ও ধ্বংসাত্মক কিছু ঘটিয়ে জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে ঘুরাতে পারে বলে মনে করছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এ কারণে পুলিশ সদর দফতর থেকে সারাদেশের প্রতিটি থানায় সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থানে থাকার জন্য নির্দেশ পাঠানো হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কেউ যাতে গুজব ছড়াতে না পারে সেজন্য সার্বক্ষণিক সাইবার মনিটরিং করা হচ্ছে।
পুলিশ সদর দফতর সূত্রে জানা গেছে, পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন পদ্মার দুই পাড়েই শুধু পাঁচ হাজারের বেশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ইউনিফর্মে মোতায়েন থাকবেন। সাদা পোশাকে তৎপর থাকবেন বিপুলসংখ্যক গোয়েন্দা সদস্য। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে নাশকতার আশঙ্কা রয়েছে বলে সরকারের নীতি নির্ধারক মহলে অবহিত করেছে গোয়েন্দা সংস্থা। গোয়েন্দা সংস্থার নাশকতার আশঙ্কার রিপোর্ট সম্পর্কে ডিএমপির একাধিক থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) কর্মকর্তা বলেছেন, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সদর দফতর থেকে নির্দেশ পেয়েছি। গত রবিবার রাত থেকেই অভিযান চলছে। বিশেষ করে নজর রাখা হচ্ছে মেস ও আবাসিক হোটেলগুলোতে। ঢাকার বাইরে থেকে বহিরাগত কেউ অবস্থান নিয়েছে কি না, অবস্থান নিলেও তার নাম-ঠিকানা সংগ্রহ করা হচ্ছে। আর কারো ওপর সন্দেহ হলে তার ওপর বিশেষ নজরদারি রাখা হচ্ছে।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, পদ্মা সেতু আওয়ামী লীগ সরকারের একটি বড় সাফল্য। সেতুটি নির্মাণের শুরু থেকেই সরকারবিরোধীরা ষড়যন্ত্র করে আসছে। তারা দেশে-বিদেশে নানা অপপ্রচার চালাচ্ছে। সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরেও নাশকতার অপচেষ্টা চলছে বলে গোয়েন্দা তথ্য আছে। রাজধানীর প্রতিটি মেসে সাঁড়াশি অভিযান চালানো হচ্ছে। অনেক কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মেসে অবস্থান করেন। তাদের মধ্যে বহিরাগতরা অবস্থান নিয়েছে কি না, সেটা নিশ্চিত করা হচ্ছে। পদ্মার দুই পাড়ে সংশ্লিষ্ট দুই জেলার বাইরে থেকেও ফোর্স নিয়ে আসা হবে উদ্বোধন অনুষ্ঠান ঘিরে। নদীতে নৌপুলিশ নিরাপত্তা দেবে। সঙ্গে কোস্টগার্ডও থাকবে। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিন প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিসভার সদস্য, বিশিষ্ট রাজনীতিক ছাড়াও বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। তাদের নিরাপত্তায় বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হবে।
র‌্যাবের লিগ্যাল এ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেছেন, র‌্যাবের গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে। পাশাপাশি র‌্যাব সাইবার নিরাপত্তা জোরদার করেছে। যাতে করে কেউ অনলাইনে কোন ধরনের উস্কানিমূলক তথ্য না প্রচার করতে পারে। র‌্যাব সদস্যরা সতর্ক অবস্থায় রয়েছে।
পুলিশ সদর দফতরের ডিআইজি (অপারেশনস ও অতিরিক্ত দায়িত্বে মিডিয়া এ্যান্ড প্ল্যানিং) মোঃ হায়দার আলী খান বলেছেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধনকে ঘিরে দেশের বাইরে থেকে উস্কানি দেয়া হচ্ছে। দেশের ভেতরেও কেউ এ ধরনের কাজ করতে পারে। তাদের মনিটরিং করা হচ্ছে। তাদের ওপর সাইবার নজরদারি চলছে। সেই অনুযায়ী ফোর্সও মোতায়েন করা হয়েছে। পাশাপাশি সারাদেশেই নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। তিনি বলেন, দেশের যেসব জায়গায় বড় পর্দায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখানো হবে, সেসব জায়গায় নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। এছাড়া আশপাশের এলাকায় ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা উন্নত করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। যারা অনুষ্ঠানস্থলে আসবেন তাদের চলাফেরাও নির্বিঘœ করতে সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। নাশকতার পরিকল্পনা বিষয়ে সন্দেহভাজনদের এরই মধ্যে নজরদারিতে আনা হয়েছে। সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। গোয়েন্দারাও মাঠে কাজ করছেন। পাশাপাশি সাইবার মনিটরিং বাড়ানো হয়েছে। আমরা এর আগেও কয়েকবার পদ্মা সেতু নিয়ে গুজব ছড়াতে দেখেছি। সেই অভিজ্ঞতা থেকে কেউ যাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব ছড়াতে না পারে সেজন্য সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হচ্ছে।
গোয়েন্দা সংস্থার একজন কর্মকর্তা বলেছেন, রাজধানীসহ দেশের প্রতিটি রেঞ্জের অফিসারদের পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠান ঘিরে সতর্ক করা হয়েছে। আমাদের কাছে গোয়েন্দা তথ্য আছে, একটি গোষ্ঠী এই স্বপ্নের সেতুর অনুষ্ঠানকে বানচাল করতে পারে। বিশেষ করে ডিএমপির প্রতিটি থানাকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, থানা এলাকায় অবস্থিত মেস ও আবাসিক হোটেলগুলোতে নজরদারি বাড়াতে। পাশাপাশি অভিযান চালানোরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ঢাকা ও আশপাশের মেস, আবাসিক হোটেলসহ বিভিন্ন স্পর্শকাতর ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অভিযান পরিচালনা ও নজরদারি করা হচ্ছে বলে জানা গেছে মূল সেতু ঘিরে নিরাপত্তা থাকছে সেনাবাহিনী। আকাশ পথে হেলিকপ্টার উড়বে। হেলিকপ্টারে থাকবে সুজ্জিত কামান। টার্গেট ফিক্সিং করা থাকবে, যাতে অঘটন ঘটলেই এ্যাকশনে যেতে পারে।
পুলিশ সদর দফতরের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সেতু কর্তৃপক্ষ বলছে, ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন মাওয়া ঘাট দিয়ে চলাচলকারীদের বিকল্প রুট পাটুরিয়া ব্যবহারের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ওই দিন মাওয়া ঘাট দিয়ে কোন গাড়ি চলাচল করবে না। পদ্মা সেতুর উদ্বোধন ঘিরে রাজধানীতে পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। প্রত্যেক থানা পুলিশকে বিশেষ নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তল্লাশি চৌকি বসিয়ে চেক করতে বলা হয়েছে। বিশেষ করে বিভিন্ন মেস ও আবাসিক হোটেলগুলোতে নজরদারি বাড়াতে বলা হয়েছে। যাতে কেউ পদ্মা সেতুর উদ্বোধন ঘিরে কোন ধরনের নাশকতা চালাতে না পারে, সেজন্য গোয়েন্দা নজরদারিও বৃদ্ধি করা হয়েছে। কোন সন্দেহজনক ব্যক্তি পাওয়া গেলে তাকে আটক করা হচ্ছে। গত দুই-তিনদিনে কয়েকজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। আবাসিক হোটেল, মেসসহ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চলছে। আগে যারা বর্ডার ছিলেন তাদের সঙ্গে নতুন করে কেউ উঠেছে কি না, উঠলেও তারা কী কাজে, কেন এসেছেন তার তথ্য নেয়া হচ্ছে।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেছেন, সরকার আশা করছে, যাত্রাবাড়ী থেকে পদ্মা সেতুর এক্সপ্রেসওয়ে শুরু পর্যন্ত উদ্বোধনের দিন ওই সড়কেই থাকবে মানুষের স্রোত। ওই পথে যাতায়াতকারী অতিথিরা যাতে কোন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন না হোন সেজন্য পুরো এক্সপ্রেসওয়ে ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। অন্য এলাকা থেকে ট্রাফিক সার্জেন্টসহ উর্ধতন পুলিশ কর্মকর্তাদের এনে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সব সময় চলছে সমন্বয় বৈঠক। পদ্মা সেতুর উদ্বোধন ঘিরে কেউ যেন ন্যূনতম অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটাতে না পারে সেজন্যই এই কঠোর নিñিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
গোয়েন্দা সংস্থার একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, দেশের সব গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য পদ্মা সেতুর উদ্বোধন ঘিরে মাঠে কাজ করছে। সেতুর আশপাশের এলাকায় তারা নজিরবিহীন দায়িত্ব পালন করছে। পাশাপাশি পুলিশ, র‌্যাব, আনসারসহ সবাই মিলে পুরো এলাকা ঘিরে রেখেছে। মূল সেতু পাহারায় রয়েছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পুরো আয়োজনও সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানেই হবে। একটি চক্রান্তকারী গোষ্ঠী ওই দিন সারাদেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দৃষ্টি ভিন্ন দিকে নিতে পারে এমন আশঙ্কায় সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদার করতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে সাইবার ওয়ার্ল্ডে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। সাইবার জগতে কেউ যেন উদ্ভট ও বানোয়াট তথ্য ছড়াতে না পারে সেজন্য পুলিশের সাইবার ইউনিট সার্বক্ষণিক কাজ করছে। জঙ্গীদের সাইটগুলোও মনিটরিং করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দা কর্মকর্তা।

The Daily Janakantha website developed by BIKIRAN.COM

Source: জনকন্ঠ

সম্পর্কিত সংবাদ
নাচ-গানের যুগলবন্দীতে গীতিআলেখ্য উৎসব

নাচ-গানের যুগলবন্দীতে গীতিআলেখ্য উৎসব শেষের পাতা 26 Jun 2022 26 Jun 2022 Daily Janakantha সংস্কৃতি প্রতিবেদক ॥ বিকেলটা ছিল এক Read more

ইতিহাসের সাক্ষী: ইউক্রেনে ১৯৩০-এর দশকের যে ভয়াবহ দুর্ভিক্ষে মারা যায় লক্ষ লক্ষ মানুষ

ইউক্রেনে ১৯৩৩ সালের বসন্তকালে এমন এক দুর্ভিক্ষ হয়েছিল যাতে মারা গিয়েছিল লক্ষ লক্ষ মানুষ। মারিয়া ভলকোভা সে সময় ছিলেন স্কুলের Read more

আঁকাআঁকির আশ্রয়ে কর্মশালা, ছবির টাকায় বাঁচবে জীবন

আঁকাআঁকির আশ্রয়ে কর্মশালা, ছবির টাকায় বাঁচবে জীবন শেষের পাতা 26 Jun 2022 26 Jun 2022 Daily Janakantha মনোয়ার হোসেন ॥ Read more

বর্ষায় ঈদ ফ্যাশন

বর্ষায় ঈদ ফ্যাশন ফ্যাশন 27 Jun 2022 27 Jun 2022 Daily Janakantha আনন্দ কখনও রঙিন পুষ্পধারার স্নিগ্ধতা নিয়ে মানুষের মর্মরে Read more

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি -শ্রেণি : সপ্তম -অধ্যায় : প্রথম (প্রাত্যহিক জীবনে আইসিটি)

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি -শ্রেণি : সপ্তম -অধ্যায় : প্রথম (প্রাত্যহিক জীবনে আইসিটি) শিক্ষা সাগর 27 Jun 2022 27 Jun Read more

ম্যামথ শাবকের মমির সন্ধান

ম্যামথ শাবকের মমির সন্ধান প্রথম পাতা 26 Jun 2022 26 Jun 2022 Daily Janakantha কানাডার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে বরফযুগের একটি লোমশ ম্যামথ Read more

আমরা নিরপেক্ষ নই ,    জনতার পক্ষে - অন্যায়ের বিপক্ষে ।    গণমাধ্যমের এ সংগ্রামে -    প্রকাশ্যে বলি ও লিখি ।   

NewsClub.in আমাদের ভারতীয় সহযোগী মাধ্যমটি দেখুন